Breaking News

যে কোনো White Color ছবিকে HD Coloring ছবিতে পরিনত করুন Colorize Premium App এর মাধ্যমে…

[ad_1]

কেমন আছেন বন্ধুরা ..? আশা করি সবাই ভালো আছেন । আজকে আপনাদের সাথে একটি ট্রিক শেয়ার করতেছি টাইটেল দেখে হয়তো বুঝে গিয়েছেন । শুরু করার আগেই বলে নেই কিছু ভুল হলে ক্ষমা করবেন এবং ভুল ধরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করবেন ।

আমাদের অনেকেরই অনেক সাদা কালো ছবি আছে , সাদা কালো ছবি ততো ভালো দেখায় না , ভাবুন তো সাদা কালো ছবি যদি Android ফোনের মাধ্যমে নিখুঁত ভাবে Coloring করা যায় তাহলে কেমন দেখায় । অবশ্যই ভালো দেখাবে । আর আমরা অনেকেই অনেক ধরনের App ব্যবহার করে থাকি ছবি Coloring জন্য কিন্তু ঐ এপ গুলোতে ভালো মানের Coloring হয় না । তাই আপনাদের জন্য একটি জনপ্রিয় App নিয়ে এসেছি , যেখান থেকে আপনারা এক ক্লিকেই White Photo Coloring করতে পারবেন

তাহলে শুরু করা যাক ।

১ . Coloring করার জন্য আমাদের Colorize Premium Version Apps টির প্রয়োজন পরবে । Premium App টি ডাউনলোড করার জন্য নিচে যান ।


APPS DETAILS :

Apps Name : Colorize – Color to old photo

App Size : 66.8 Mb

Released on : 27 Dec 2020

Apps Subscription: Premium
Apps Pro Features :

1. Unlimited photo colorization

2. Unlimited saving of colorized photos

3. Unlimited sharing of colorized photos

4. Photo backup and access from multiple devices

5. All Ads Removed

Download Pro Apps Free

২ . Coloring করার জন্য প্রথমে App টি Open করুন তারপর Scan Or Upload a photo এ ক্লিক করুন তারপর কিছু Permission চাইবে তা Allowed করে দিন আপনার সাদা কালো ছবিটি খুঁজে নিন , এবং আপনার কাঙ্খিত ছবিটিতে ক্লিক করুন এবার অটোমেটিক Coloring হতে শুরু করবে এরপর কয়েক মিনিট অপেক্ষা করুন Coloring হওয়া পর্যন্ত এরপর Done এ ক্লিক করুন আপনার ছবিটি Save হয়ে যাবে । ছবিটি আপনার Storage এ নেওয়ার জন্য আপনার Coloring ছবিটিতে ক্লিক করুন তারপর Three Dot Menu তে ক্লিক করুন তারপর Share This Photo এ ক্লিক করুন তারপর Save এ ক্লিক করুন Storage Permission চাইলে তা Allowed করে দিন ব্যস আপনার কাজ শেষ এখন আপনার ছবিটি আপনার মেমরিতে Save হয়ে গেছে ।

আজ এ পর্যন্তই ,যে কোন Premium Apps লাগলে বলতে পারেন দেওয়ার চেষ্টা করবো । ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র জ্ঞান আপনাদের মাঝে তুলে ধরার চেস্টা করবো ।
ধন্যবাদ সবাইকে ।



[ad_2]
Source link

Sql Injection এর মাধ্যমে ওয়েবসাইট হ্যাক করুন [পার্ট ২]

[ad_1]

আগের পোস্ট আমরা শিখেছি কিভাবে সাইট এর দূর্বলতা চেক করতে হয়, এবং কোন সাইট গুলো তে sql injection করা যাবে।

আজ আমরা শিখবো কিভাবে সাইট এর কলাম সংখ্যা বের করতে হয়।

আমাদের টার্গেট সাইট ছিলো এটা
https://simentor.pu.go.id/post.php?id=24

কলাম বের করতে হলে সাইট এর লিংক এর একদম শেষ এ
[এটা +ORDER+BY+1– ] অথবা
[এটা order by 1– ]যেকোন একটা দিতে হয়।

তাহলে লিংক টা হবে
https://simentor.pu.go.id/post.php?id=24

এখন থেকে +ORDER+BY+1– বসিয়ে লিংক হবেঃ
https://simentor.pu.go.id/post.php?id=24+ORDER+BY+1–

শেষ এ দেখতে পাচ্ছেন 1 দেওয়া আছে এটা দিয়েই কলাম বের করতে হবে।

ধরুন কোন সাইট এ যদি ১০ টা কলাম সংখ্যা থাকে তাহলে ১ এর জায়গায় ১০ বসাতে হবে।

তাহলে এমন হবেঃ +ORDER+BY+10–

আমাদের টার্গেট সাইট এটাঃ https://simentor.pu.go.id/post.php?id=24

আমরা এই সাইট এর কলাম বের করবো তো লিংক এর শেষ এ +ORDER+BY+1– বসাবো

https://simentor.pu.go.id/post.php?id=24+ORDER+BY+1– এটা ব্রাউজার এ এন্টার করবো।

নোটঃ কোন সাইট এর কলাম সংখ্যা ১০ টি এখন যদি সাইট লিংক শেষ এ +ORDER+BY+5– বসান তাহলে সাইট এ কোন চেন্জ হবে না, কিন্তু যখন +ORDER+BY+11– বসাবেন তখন ই সাইট এ Error আসবে। আরো ভালো করে বল্লে ধরুন আমাদের টার্গেট সাইট এর কলাম ১২টি এখন আপনি কলাম সংখ্যা বের করার জন্য +ORDER+BY+1– দিয়ে রান করলেন তাহলে সাইট এর কোন চেন্জ হবে না কিন্তু যখন সাইট এর কলাম সংখ্যা থেকে আপনার দেওয়া +ORDER+BY+ এখান কার সংখ্য — টা বেশি হবে তখন এরর আসবে।

সাইট কলাম ১৫টি আপনি যদি লিংক এর শেষ এ +ORDER+BY+16– দেন তাহলে এরর আসবে.

সাইট কলাম ১০টি আপনি যদি লিংক এর শেষ এ +ORDER+BY+11– দেন তাহলে এরর আসবে.

সাইট কলাম 5 টি আপনি যদি লিংক এর শেষ এ +ORDER+BY+6– দেন তাহলে এরর আসবে.

মানে সাইট এর কলাম সংখ্যা থেকে আপনার দেওয়া আর্ডার এর সংখ্যা বেশি হলে এরর আসবে, কিন্তু সাইট এর কলাম সংখ্যা আপনার দেওয়া আর্ডার এর সংখ্যার চেয়ে কম হয় তাহলে এরর দেখাবে না।

উদাহরণঃ
সাইট কলাম ১৫টি আপনি যদি লিংক এর শেষ এ +ORDER+BY+14– দেন তাহলে এরর আসবে না.

সাইট কলাম ১০টি আপনি যদি লিংক এর শেষ এ +ORDER+BY+5– দেন তাহলে এরর আসবে না।

সাইট কলাম 5 টি আপনি যদি লিংক এর শেষ এ +ORDER+BY+1– দেন তাহলে এরর আসবে না।

তারমানে আপনাকে সঠিক কলাম খুজে বের করতে হবে,

আমাদের টার্গেট সাইট টাঃ
https://simentor.pu.go.id/post.php?id=24+ORDER+BY+7– দিয়ে দেখলাম কোন এরর নেই, 7 এর কম দিয়েও দেখেছি এরর নেই

কিন্তু

https://simentor.pu.go.id/post.php?id=24+ORDER+BY+8– দিয়ে দেখলাম এরর আছে, 8 এর বেশি দিয়ে দেখেছি এরর আছে

তারমানে কলাম আছে 7টি আমরা কলাম বের করতে সক্ষম হয়েছি।

আজ এই পযন্তই থাক পরবর্তী পোস্টে দেখবো কিভাবে সাইট এর কোন কলাম vulnerable সেটি চেক করতে হয়

আমাদের সবমিলিয়ে পোস্ট হবে ৫টা, ৫টা পোস্টে আমরা sql injection শিখে ফেলবো🥰🥰

পোস্ট ভালো লাগলে

আমাদের সাইট টা ডিজিট করবেনঃ Trickusbd



[ad_2]
Source link

Google Drive থেকে মাত্র ১ ক্লিকে পুরো ফোল্ডার ডাউনলোড করুন আপনার Android ফোনে

[ad_1]

এটি একটি সাধারণ ট্রিক সবার জেনে রাখা ভাল। মাঝেমাঝে আমাদের ড্রাইভ থেকে ফোল্ডার ডাউনলোড করার প্রয়োজন পরে থাকে। এটি অনেক ঝামেলার কাজ মনে হলেও খুব সোজা। আপনি স্টেপ বাই স্টেপ একবার ফলো করে দেখেন দেখবেন খুব সহজ এটি। এর জন্য কোনো ডাউনলোড ম্যানেজার প্রয়োজন নেই যেকোন ব্রাউজার থেকেই হবে তবে আমি সাজেস্ট করব IDM/1Dm ডাউনলোড করতে আপনার অ্যান্ড্রয়েড ফোনে।

এটি ডাউনলোড করা হয়ে গেলে আপনি আইডিএম এর ব্রাউজার যান এবং আপনার লিংক পেস্ট করে দিন। তার পর ডান পাশে উপরে ট্রি ডট মেনুতে ক্লিক করে ডেস্কটপ mode অন করুন। একটু নিচে স্ক্রল করলেই পাবেন।
পেইজটি ডেস্কটপ mode এ আসলেই আপনি যে ফোল্ডার ডাউনলোড করতে চান তার উপর একবার ক্লিক করেন দেখবেন একটি ডাউনলোড আইকন তৈরি হবে ফোল্ডারটি উপর সেখানে আবার ক্লিক করলেও প্রসেসিং শুরু হয়ে যাবে। ডানপাশে নিচে দেখবেন ফোল্ডারটি অনলাইনে জিপ হওয়া শুরু হয়েছে এবং এটি কমপ্লিট হলেই আপনার ডাউনলোড শুরু হয়ে যাবে। এই জিপ হওয়ার সময় নির্ভর করবে ফোল্ডারের সাইজ, ফাইলস এইসবের উপর।
একদম উপরে একটি অপশন দেখতে পাবেন। আপনার যদি লিংকটি তে একের অধিক ফোল্ডার থাকে তবে সব গুলো ফোল্ডার একসাথে ডাউনলোড করতে উপরে অপশনটি ক্লিক করতে পারেন। এতে জিপ প্রসেস হয়ে আপনার ডাউনলোড শুরু হবে। তবে একাধিক ফোল্ডার জিপ হতে অনেক সময় লাগতে পারে তাই আপনাকে ধর্য রাখতে হবে।

এই donwload লিংক গুলো ড্রাইভ এর লিংক তাই আপনি যেকোন সময় এটি pause করে রাখতে পারবেন কোনো সমস্যা হবে না। ব্রাউজার থেকেও ডেস্কটপ মড অন করে ডাউনলোড করা যাবে তবে আমি ডাউনলোড ম্যানেজার পছন্দ করি।



[ad_2]
Source link

মেডিকেল, ভার্সিটি এবং ইঞ্জিনিয়ারিং প্রিপারেশন এগিয়ে নিতে ডাউনলোড করে নিন STUDYWAR এর সাজানো সয়াহক বইয়ের ফোল্ডার

[ad_1]

সবারই জানা আছে এখন প্রতিবছরের মত ভর্তি যুদ্ধ চলছে এবং এই যুদ্ধের গুরুত্তপূর্ণ ২ টি অস্ত্র হচ্ছে বাংলা এবং ইংলিশ। সকল সাবজেক্ট এর পাশাপাশি এই ২ টিকে খুবই গুরুত্ব সহকারে বিবেচনা করা হয়। কিন্তু অনেকে,আসলে বেশিরভাগ স্টুডেন্ট দের দেখা যায় সকল সাবজেক্ট পড়লেও এই ২ সাবজেক্ট এ একটু ফাঁকিবাজি করে এবং তার ফলাফল যুদ্ধের মাঠে দেখে। তাই আমার সাজেশন থাকবে যতক্ষণ পড়ার টেবিলে থাকব ততক্ষণ অন্যান্য সাবজেক্ট পড়লেও মোবাইল হাতে নিলেই বাকি ২ সাবজেক্ট পড়ব। এখন মোবাইল কিভাবে পড়াশোনা হবে? ইউটিউব, ফেসবুক কতকিছুই তো আছে। তাই এইসব আরেকটু সহজ করতে আমি STUDYWAR এর সাজানো পিডিএফ এর ফোল্ডারটি শেয়ার করছি তুমাদের সঙ্গে। মেডিকেল, ইঞ্জিনিয়ারিং এবং ভার্সিটির জন্য এটি অনেক বড় উপকার করবে। আশা করি সবার উপকার হবে। ভর্তি পরীক্ষার সুবিধার্তে এই ফোল্ডারটি করা হয়েছিল কেউ যদি এর অপব্যাবহার বা এই ধরনের কোনো কাজ করে তবে এটির একসেস বন্ধ করে দেয়া হতে পারে। তাই তুমাদের যদি পিসি বা wifi থাকে তবে সাজেস্ট করব পুরো ফোল্ডারটি ডাউনলোড করে নিতে। কিভাবে ফোল্ডার ডাউনলোড করতে হয় তা নিয়ে আগমি পোস্ট এ লিখব।

DETAILS

English Pdf Password: STUDYWAR

  • Size:
  • Many GB

  • Subject:
  • Bangla,English,Math,Physics,Chemistry And Many More…

  • Page:
  • Many Pages

FOLDER LINK

Folder Link Download Now

SCREENSHOTS

CREDITS

1.JoyKoli এবং অন্যান্য পাবলিকেশন কে বইগুলোর জন্য।
2.STUDYWAR ইংরেজী পিডিএফ ফাইলটির জন্য।



[ad_2]
Source link

জয়কলী বাংলা ১ম, ২য় এবং ইংরেজী পিডিএফ নিয়ে নিন একদম ফ্রীতে এবং ভর্তি যুদ্ধে এগিয়ে যান আরেকটি ধাপ।

[ad_1]

সবারই জানা আছে এখন প্রতিবছরের মত ভর্তি যুদ্ধ চলছে এবং এই যুদ্ধের গুরুত্তপূর্ণ ২ টি অস্ত্র হচ্ছে বাংলা এবং ইংলিশ। সকল সাবজেক্ট এর পাশাপাশি এই ২ টিকে খুবই গুরুত্ব সহকারে বিবেচনা করা হয়। কিন্তু অনেকে,আসলে বেশিরভাগ স্টুডেন্ট দের দেখা যায় সকল সাবজেক্ট পড়লেও এই ২ সাবজেক্ট এ একটু ফাঁকিবাজি করে এবং তার ফলাফল যুদ্ধের মাঠে দেখে। তাই আমার সাজেশন থাকবে যতক্ষণ পড়ার টেবিলে থাকব ততক্ষণ অন্যান্য সাবজেক্ট পড়লেও মোবাইল হাতে নিলেই বাকি ২ সাবজেক্ট পড়ব। এখন মোবাইল কিভাবে পড়াশোনা হবে? ইউটিউব, ফেসবুক কতকিছুই তো আছে। তাই এইসব আরেকটু সহজ করতে আমি বাংলা এবং ইংরেজী জয়কলির পিডিএফ শেয়ার করছি তুমাদের সঙ্গে। আশা করি সবার উপকার হবে।

DETAILS

English Pdf Password: STUDYWAR

  • Size:183.3MB+81.4MB
  • Subject:Bangla 1-2 & English
  • Page:254+98 Pages

DOWNLOAD LINK

জয়কলি বাংলা বিচিত্রা

জয়কলী meDi ইংলিশ

SCREENSHOTS


CREDITS

1.JoyKoli বইগুলোর জন্য
2. Admissionwar.com পিডিএফ ফাইলটির জন্য।
3.STUDYWAR ইংরেজী পিডিএফ ফাইলটির জন্য।



[ad_2]
Source link

New Coupon Method – ছয় মাসের জন্যে Seed4.ME VPN (Premium)

[ad_1]

আচ্ছালামুয়ালাইকুম

যাদের আজকের এই পোষ্টের উপর আগে থেকেই ধারণা রয়েছে তারা এই পোস্টটিকে ইগনোর করতে পারেন।

সবাই কেমন আছেন.? আশা করি ভাল…. ট্রিকবিডির মেম্বার সবসময়ই ভালই থাকে। পোস্ট ছোট হওয়ায় আমি ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি ।

Click the link below and enter your email and password:

this link:

https://seed4.me/users/register?gift=6MONTH

Coupon : 6MONTH



[ad_2]
Source link

ফ্রিল্যান্সার একাউন্ট যেভাবে ভেরিফিকেশন করবেন ।

[ad_1]

আসসালামু আলাইকুম ।

অনেকেই প্রতিনিয়ত পোস্ট করে জানতে চায় কিভাবে ফ্রিল্যান্সার একাউন্ট ভেরিফাই করা যায় । এবং কোনো ঝামেলা ছাড়া । তাহলে চলুন শুরু করা যাক। অনুরোধ থাকবে পোস্ট আগে সুন্দর করে পড়বেন এরপরে মেসেজ বা কমেন্টস করবেন।

কিছু জিনিস মাথায় রাখবেন ।

  1. ভেরিফিকেশনের সময় দুই আইডি লগিন থাকা অবস্থায় ভেরিফিকেশন করবেন না।
  2. ভেরিভাই করার আগে যে আইডি বর্তমান পিসিতে লগিন আছে সেটাতে নতুন আইডি লগিন করবেন না।
  3. ভেরিফাই করার আগে প্রতিটা স্টেপ ভালো ভাবে চেক করে পরের স্টেপে যাবেন।

স্টেপ ০১।

প্রথমে ড্যাশবোর্ড থেকে সেটিংসে চলে যান।

ফ্রিল্যান্সার একাউন্ট যেভাবে ভেরিফিকেশন করবেন ।

ফ্রিল্যান্সার একাউন্ট যেভাবে ভেরিফিকেশন করবেন ।

 

প্রোফাইল ডিটেইলসে আপনার ন্যাশনাল আইডি কার্ড/ড্রাইভিং লাইসেন্স কার্ড/পাসপোর্ট এর সকল তথ্যাদি সম্পূর্ণ সঠিক ভাবে লিখুন । ফার্স্ট নেম, লাস্ট নেম, এড্রেস, সিটি, জীপ/পোস্ট কোড, স্টেট/ প্রোভিন্স, কান্ট্রি চেঞ্জ করতে পারবেন না। কারণ, আপনি যে দেশে থাকবেন সেই দেশ একাউন্ট ক্রিয়েট করার সাথে সাথে সিলেক্ট হয়ে যায় ।

স্টেপ ০২ ।

এরপরে আইডিন্টিটি ভেরিফিকেশনে চলে যাবেন ।  আইডি ভেরিফিকেশন করতে হলে কি কি প্রয়োজন হবে সেগুলো ভেরিফিকেশন সেন্টারে গেলে দেখতে পারবেন । কিন্তু আমি লিখে দিচ্ছি কি কি প্রয়োজন্য হবে আইডি ভেরিফিকেশনের জন্য।

Proof Of Your Identity.

আইডি ভেরিফাই করতে হলে অবশ্যই সরকার অনুমোদিত ডকুমেন্টস লাগবে । কি কি ডকুমেন্টস আইডি ভেরিফিকেশনের কাজে লাগতে পারে সেগুলো নিম্নরূপঃ

  • পাসপোর্ট
  • ড্রাইভিং লাইসেন্স
  • ন্যাশনাল আইডি কার্ড (অবশ্যই স্মার্ট আইডি কার্ড)
  • অন্য যেকোনো আইডি কার্ড কিন্তু সরকার অনুমোদিত হতে হবে। উল্লেখ্য যে, অই কার্ডে আপনার নাম, ছবি, জন্ম তারিখ, এবং আপনার স্বাক্ষর অবশ্যই থাকতে হবে। না হলে ভেরিফিকেশন হবে না।

ফ্রিল্যান্সার আইডি ভেরিফিকেশন পলিসি জানতে চাইলে এই লিংকে যেতে পারেন। আরো কি কি ডকুমেন্টস দিয়ে ভেরিফাই করতে পারবেন সেগুলো জানতে চাইলে এই লিংকে যেতে পারেন। 

Keycode Verification.

ফ্রিল্যান্সার থেকে আপনাকে একটা ইউনিক কিকোড দেওয়া হবে । অই কোডটা একটা সাদা খাতায় লিখে বা প্রিন্ট করে সুন্দর করে ছবি তুলতে হবে । দুইহাতে দুইটা ডকুমেন্টস নিয়ে পিক তুলবেন। এক হাতে কিকোড আরেক হাতে ন্যাশনাল আইডি কার্ড/ড্রাইভিং লাইসেন্স কার্ড/পাসপোর্ট ।

Proof of Address.

এরপরে আপনাকে আপনার এড্রেস ভেরিফাই করতে হবে। আপনাকে অবশ্যই এমন ডকুমেন্টস সাবমিট করতে হবে যাতে আপনার পুরো নাম এবং ঠিকানা অন্তর্ভুক্ত থাকে এবং অবশ্যই প্রদানকারী কর্তৃপক্ষের নাম, ঠিকানা এবং ফোন নম্বরটি অবশ্যই স্পষ্টভাবে দেখা যায় ।  নিম্নলিখিত ডকুমেন্টস গুলো সাবমিট করা যেতে পারেঃ

  1. ব্যাংক বিবৃতি (গত 3 মাসের মধ্যে ইস্যু করা)
  2. ইউটিলিটি বিল (গত 3 মাসের মধ্যে ইস্যু করা)
  3. আবাস আইডি/পারমিট
  4. অন্য যেকোনো ডকুমেন্টস কিন্তু সরকার অনুমোদিত হতে হবে। উল্লেখ্য যে, অই ডকুমেন্টসে আপনার নাম, ছবি, জন্ম তারিখ, এবং আপনার স্বাক্ষর অবশ্যই থাকতে হবে।
ফ্রিল্যান্সার একাউন্ট যেভাবে ভেরিফিকেশন করবেন ।

ফ্রিল্যান্সার একাউন্ট যেভাবে ভেরিফিকেশন করবেন ।

ফ্রিল্যান্সার একাউন্ট যেভাবে ভেরিফিকেশন করবেন ।

ফ্রিল্যান্সার একাউন্ট যেভাবে ভেরিফিকেশন করবেন ।

স্টেপ ০৩।

ভেরিফাই মাই আইডিন্টিটিতে ক্লিক করার পরে আপনাকে তার পরে স্টেপে নিয়ে আসবে । এখান থেকে আপনাকে কান্ট্রি/দেশ সিলেক্ট করতে হবে। আপনি কোন দেশে থাকেন সেটা বক্স থেকে সিলেক্ট করে দিতে হবে। এরপরে নেক্সট বাটনে প্রেস করুণ।

ফ্রিল্যান্সার একাউন্ট যেভাবে ভেরিফিকেশন করবেন ।

ফ্রিল্যান্সার একাউন্ট যেভাবে ভেরিফিকেশন করবেন ।

স্টেপ ০৪।

কান্ট্রি সিলেক্ট করার পরে আপনাকে পরের ধাপে নিয়ে আসবে। কাস্টমার ইনফরম্যাশনে আসার পরে আপনার জাতীয় আইডি কার্ড/ড্রাইভিং লাইসেন্স/পাসপোর্টে দেওয়া নাম অনুযায়ী এখানেও সেই একই নাম এবং জন্ম তারিখ লিখবেন। এরপরে নেক্সট বাটনে ক্লিক করবেন।

ফ্রিল্যান্সার একাউন্ট যেভাবে ভেরিফিকেশন করবেন ।

ফ্রিল্যান্সার একাউন্ট যেভাবে ভেরিফিকেশন করবেন ।

স্টেপ ০৫।

পরবর্তি ধাপে আসার পরে আপনাকে কার্ড ইস্যুকৃত দেশের নাম সিলেক্ট করতে হবে। মনে করেন, আমার আইডি কার্ড বাংলাদেশ থেকে ইস্যু করা তাহলে আমি অবশ্যই বাংলাদেশ সিলেক্ট করবো । দেশ সিলেক্ট করার পরে ডান পাশে আরেকটা বক্স ওপেন করে আপনার কার্ড কোন টাইপ এর যেমনঃ পাসপোর্ট/ভোটার আইডি কার্ড/আর্মেড ফোর্স কার্ড/ড্রাইভিং লাইসেন্স/ ন্যাশনাল আইডি কার্ড এগুলোর মধ্যে একটা সিলেক্ট করতে হবে। এরপরে নিচের বক্সে আইডি নাম্বার লিখবেন, এরপরে আপনার কার্ডের এক্সপায়ার তারিখ লিখবেন এবং আপনার যে কার্ড সেই কার্ডের ফোর্ন্ট পার্ট এবং ব্যাক পার্টের ছবি তুলবেন। তুলে ফর্ন্ট পার্টের বক্সে ফর্ন্ট পার্ট এবং ব্যাক পার্টের বক্সে ব্যাক পার্ট এর ছবি আপলোড করবেন এরপরে সেভ অ্যান্ড নেক্সট বাটনে ক্লিক করবেন। না বুঝলে নিচের ইমেইজ দেখুন।

ফ্রিল্যান্সার একাউন্ট যেভাবে ভেরিফিকেশন করবেন ।

ফ্রিল্যান্সার একাউন্ট যেভাবে ভেরিফিকেশন করবেন ।

স্টেপ ০৬।

কিকোড ভেরিফিকেশনে আসার পরে ফ্রিল্যান্সার থেকে একটা ইউনিক কোড আপনাকে দিবে । আপনি সেই কোডটা প্রিন্ট করবেন অথবা কোনো সাদা খাতায় লিখে ছবি তুলবেন ঠিক নিচে দেওয়া ছবির মত করে ।

example--acceptable-keycode

example–acceptable-keycode

 

এইভাবে ছবি তুলে আপলোড করে দিবেন এরপরে নেক্সট বাটনে ক্লিক করবেন।

ফ্রিল্যান্সার একাউন্ট যেভাবে ভেরিফিকেশন করবেন ।

ফ্রিল্যান্সার একাউন্ট যেভাবে ভেরিফিকেশন করবেন ।

স্টেপ ০৭।

এখন আপনাকে আপনার পরিপূর্ণ এড্রেস দিতে হবে । অবশ্যই সেই এড্রেস দিবেন যেটা আপনার ব্যাংক স্টেটমেন্ট এবং ন্যাশনাল আইডি কার্ড/ড্রাইভিং লাইসেন্স কার্ড/পাসপোর্ট রয়েছে । অন্য এড্রেস দিলে ভেরিফিকেশন ক্যান্সেল করে দিতে পারে।

ফ্রিল্যান্সার একাউন্ট যেভাবে ভেরিফিকেশন করবেন ।

ফ্রিল্যান্সার একাউন্ট যেভাবে ভেরিফিকেশন করবেন ।

স্টেপ ০৮।

এরপরের স্টেপে এসে এড্রেস যেটা দিলে সেটার প্রমাণ দিতে হবে। ডকুমেন্টস ইনফোরম্যাশন দিয়ে দেন এখন। ডকুমেন্ট এর টাইপ সিলেক্ট করেন যদি ব্যাংক স্টেটমেন্ট, ইউটিলিটি বিল, আবাস আইডি/পারমিট অন্য যেকোনো ডকুমেন্টস কিন্তু সরকার অনুমোদিত হতে হবে। উল্লেখ্য যে, অই ডকুমেন্টসে আপনার নাম, ছবি, জন্ম তারিখ, এবং আপনার স্বাক্ষর অবশ্যই থাকতে হবে। সেই ডকুমেন্ট টা সিলেক্ট করেন । ইন্সটিটিউনশনের নাম। মানে যে কোন কম্পানি বা যেখান থেকে এই সকল ডকুমেন্টস পেয়েছেন তার নাম লিখবেন। যেমনঃ বাংলাদেশ ব্যাংক। এরপরে ইস্যুকৃত তারিখ লেখেন এবং নেক্সট বাটনে ক্লিক এবং আবার সেভ নেক্সট বাটনে করেন ।

ফ্রিল্যান্সার একাউন্ট যেভাবে ভেরিফিকেশন করবেন ।

ফ্রিল্যান্সার একাউন্ট যেভাবে ভেরিফিকেশন করবেন ।

স্টেপ ০৯।

এতো সময় ধরে যা যা তথ্য দিয়েছেন সেগুলো শুরু থেকে আবার  ২-৩ বার রিভিউ করেন । কোনো ভুল পেলে এডিট বাটনে ক্লিক করে এডিট করে নিতে পারেন। এরপরে সাবমিট ফর রিভিউ বাটনে ক্লিক করে সাবমিট করেন দেন।

ফ্রিল্যান্সার একাউন্ট যেভাবে ভেরিফিকেশন করবেন ।

ফ্রিল্যান্সার একাউন্ট যেভাবে ভেরিফিকেশন করবেন ।

স্টেপ ১০।

সাবমিট করার আগে আবার ফনফার্ম করতে বলবে। যদি সব ঠিক থাকে তাহলে কনফার্ম বাটনে ক্লিক করতে হবে। কোনো ভুল হলে এডিট করে পুনরায় সাবমিট করতে হবে। কনফার্ম বাটনে প্রেস করার পরে আপনি এই ধরণের একটা মেসেজ আপনার ড্যাশবোর্ডে দেখতে পাবেন।

ফ্রিল্যান্সার একাউন্ট যেভাবে ভেরিফিকেশন করবেন ।

ফ্রিল্যান্সার একাউন্ট যেভাবে ভেরিফিকেশন করবেন ।

শেষ কথাঃ

সব কিছু ঠিকঠাক থাকলে আপনি ২-৩ দিনের মধ্যে কনফার্মেশন মেইল পাবেন। আপনাকে স্বাগতম জানাবেন ।

ফ্রিল্যান্সার একাউন্ট যেভাবে ভেরিফিকেশন করবেন ।

ফ্রিল্যান্সার একাউন্ট যেভাবে ভেরিফিকেশন করবেন ।

আপনি সফল ভাবে আপনার আইডিন্টিটি ভেরিফাই করতে পেরেছেন। আপনাকে ধন্যবাদ।

আপনার যদি কোনো কিছু জানার থাকে তাহলে মেসেজ/ কমেন্টস করতে পারেন । যথা স্বাধ্য চেষ্টা করবো আপনাকে হেল্প করার জন্য।

লেখাঃ এম এইচ মামুন

প্রথম প্রকাশিতঃ মামুন্স ব্লগ ডট নেট 



[ad_2]
Source link

আপনার শরীরের গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ লিভার সুস্থ রাখার জন্য কিছু গুরুত্বপূর্ণ উপায়। যা আপনার লিভার সুস্থ রাখতে সাহায্য করবে।

[ad_1]

আসসালামু আলাইকুম সবাই কেমন আছেন…..? আশা করি সবাই ভালো আছেন । আমি আল্লাহর রহমতে ভালোই আছি ।আসলে কেউ ভালো না থাকলে TrickBD তে ভিজিট করেনা ।তাই আপনাকে TrickBD তে আসার জন্য ধন্যবাদ ।ভালো কিছু জানতে সবাই TrickBD এর সাথেই থাকুন ।

লিভার সুস্থ রাখার উপায়

আমাদের শরীরের একটি গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ হচ্ছে লিভার। আমাদের শরীরের সবগুলো অঙ্গ সুস্থ রাখা অতন্ত্য জুরুরি। লিভার ভালো না খারাপ তখনই নিশ্চিত হওয়া যায় যখন পরিপাক তন্ত্র সচল ও পরিষ্কার থাকে।শরীরের লিভার যদি কাজ করা বন্ধ হয়ে যায় তাহলে অন্য অঙ্গ গুলো আস্তে আস্তে খারাপ হতে থাকে। লিভার কি কি উপায়ে ভালো রাখা যায় চালুন সেগুলো জেনে নিই।

আমরা তো প্রতিদিন পানি পান করি কেউ বেশি আবার কেউ কম। সাধারণ ভাবে একজন সুস্থ মানুষের দিনে ৮ থেকে ১০ গ্লাস পানি পান করা উচিত। পানি পান করা ভিন্ন হতে পারে স্বাস্থ্য ও বয়স অনুযায়ী। আমাদের শরীরের প্রায় ৭০ শতাংশই হল পানি।পানি শরীরে থাকা দূষিত পদার্থ লিভারের মাধ্যমে ছেঁকে বের করতে সাহায্য করে।শরীরে পানির অভাব হলে শরীরে দূষিত পদার্থ জমতে থাকে যা আমাদের শরীরে জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর। তাই লিভার সুস্থ রাখার জন্য আমাদের পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি পান দরকার।

আমাদের শরীরের লিভার ভালো রাখার জন্য হালকা গরম পানির সাথে লেবু, মধু ও আদা দিয়ে পান করলে লিভারের কার্যক্ষমতা বাড়ে।বিশেষজ্ঞদের মতে→অন্য কিছুর তুলনায় হালকা গরম পানিতে লেবুর রস মিশিয়ে খেলে লিভারে অনেক বেশি এনজাইম উৎপাদনে সাহায্য করে।এছাড়াও ভিটামিন-সি ‘গ্লুটেথিয়ন’ নামে যে এনজাইম উৎপন্ন করে, তা লিভারের ক্ষতিকর দূষিত পদার্থ দূর করে লিভার সুস্থ রাখতে সাহায্য করে।সকালে ঘুম থেকে উঠে হালকা গরম পানির সাথে লেবুর রস মিশিয়ে পানি পানের পানের অভ্যাস গড়ে তুলুন।

আমরা অনেকেই জানি রসুনের রয়েছে সালফারের উপাদান যা আমাদের লিভারের কার্যক্ষমতাকে বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে। এছাড়াও রসুনে রয়েছে অ্যালিসিন ও সেলেনিয়াম যা লিভার পরিষ্কারের পাশাপাশি লিভারের সুস্থতা নিশ্চিত করে। লিভার সুস্থ রাখতে আপনি প্রতিদিন এক কোয়া রসুন খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তুলুন।

আমাদের শরীরের ফ্রি রেডিকেল টক্সিসিটি দূর করে এবং লিভার পরিষ্কার রাখতে গ্রিন-টির অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সাহায্য করে। আপনি প্রতিদিন ১ থেকে ২ কাপ গ্রিন-টি পান করার ফলে লিভারে জমে থাকা দূষিত পদার্থ দূর করতে পারবেন। এতে আপনার শরীরের লিভার অনেক ভালো থাকবে।

আশা করি সবাই সবকিছু বুঝতে পেরেছেন। কোথাও সমস্যা হলে কমেন্ট করে জানাবেন অথবা ফেসবুকে জানাতে পারেন ফেসবুকে আমি



[ad_2]
Source link

শিমুল এর মূলের ঔষুধি গুন ও উপকারিতা সম্পর্কে জেনে নিন।

[ad_1]

আসসালামুআলাইকুম। ও হিন্দু ভাইদের জানাই আদাব।কেমন আছেন সবাই? আশা করি সবাই ভাল আছেন।
প্রতিবারের মতো আবারো আরেকটি পোস্ট নিয়ে হাজির হলাম আপনাদের মাঝে।আজকে কোন বিষয় এ পোস্ট করতে যাচ্ছি,টাইটেল দেখে হয়তো বুঝে গেছেন।
আজকে আপনাদের মাঝে শেয়ার করব,শিমুল এর মূল এর ঔষুধি গুন নিয়ে।
শিমুলগাছ এর মূলে রয়েছে অবাক করা ঔষুধি গুন।যা আপনারা জানলে অবাক হয়ে যাবেন।
বিশেষ করে যৌন শক্তি বৃদ্ধিতে অনেক কার্যকারী।
বীর্য ঘন করে ও শুক্রাণু বৃদ্ধি করে।এছাড়া ও আরো অনেক উপকারী এই শিমুল গাছের মূল।

আমাদের দেশের আনাচে কানাচে এই শিমুল গাছ দেখা যায়।
এটি একটি ভেষজ উদ্ভিদ। এই গাছটি অনেক লম্বা হয়ে থাকে,এবং ফুল দেখতে অনেকটা সুন্দর।
বসন্তকালে এই শিমুল গাছের ফুল ছেয়ে যায়।এবং এই গাছ থেকে ভাল মানের তুলা ও হয়।
যৌন শক্তির ঔষুধ তৈরী হয় এই গাছ থেকে ই বেশির ভাগ ক্ষেত্রে।

অনেকের সন্তান হয় না।বীর্যে শুক্রাণু না থাকার কারনে এটা হয়।কিন্তু শিমুল গাছের মূল খেলে শুক্রাণু এর পরিমান বেড়ে যায়।এবং সন্তান হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়।
এবার তাহলে শুরু করা যাক শিমুল গাছের মূল এর উপকারিতা ঔষুধি গুন গুলোঃ

*এটি খেলে পুরুষের শুক্রানু অনেক গুন বৃদ্ধি পায় এবং যৌন ক্ষমতা অনেকক্ষন ধরে রাখা যায়।

*বড় ধরনের রক্ত আমাশয় ভুগলে, শিমুলের মূল ও এর সাথে ছাগলের দুধ পান করলে,বেশ কয়েকদিন খেলে এটা ভাল হয়ে যাবে।

*পুরুষ আছে অনেক যারা স্ত্রী সহবাস এ দীর্ঘক্ষন থাকতে পারে না।এতে স্ত্রী তিপ্ত হয় না।
এবং স্ত্রী এর মনে পরিপূর্ণ সুখ আসে না।ফলে অশান্তি লেগে থাকে পরিবারে।এর কারন পুরুষের বীর্য পাতলা, পাতলা বীর্য এ যৌন মিলনে দীর্ঘক্ষন থাকা যায় না।এই ভয়াবহ রোগ ভাল করতে শিমুল এর মূল অত্যান্ত কার্যকারী।
শিমুলমূল,তেতুল বীজের গুড়া,অশ্বগন্ধা একত্রে খেলে এই সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যাবে।

*আমাদের অনেক সময় ফোড়া হয়ে থাকে,এবং অনেক যন্ত্রনা আমাদের দেয়।এই ফোড়ার ব্যাথা থেকে মুক্তি পেতে হলে, শিমুল এর গাছের মূল ছেচে ক্ষত স্তানে লাগালে ভাল ফল পাওয়া যায়।

*মেসতা এবং এ ধরনের রোগ দূর করে শিমুল গাছের মূল।

*মহিলাদের রক্তস্রাব হলে,এই শিমুল গাছের মূল খেলে মুক্তি পাওয়া যায়।

*যৌন দূর্বালতা ও শারীরিক ভাবে দূর্বল থাকলে শিমুল এর মূল খেলে অনেক উপকার পাওয়া যায়।

এছাড়া ও শিমুল এর মূল দিয়ে অনেক ঔষধ বানানো হয়।

টেকনিক্যাল বিষয়ে যাবতীয় ভিডিও ও সমাধান পেতে আমাদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুনঃ

Youtube Channel

আজ এ পযন্ত,

ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র জ্ঞান আপনাদের মাঝে তুলে ধরার চেস্টা করি।
পরবর্তী ট্রিক এর জন্য অপেক্ষা করুন, আবারো ভাল কিছু নিয়ে হাজির হবো।
সে পযন্ত ভাল থাকুন,সুস্থ থাকুন।

যে কোনো প্রয়োজনে আমার সাথে ফেসবুকে যোগাযোগ করতে চাইলেঃ- Sk Shipon

ধন্যবাদ



[ad_2]
Source link

ডাউনলোড করে নিন Blackhat Cracking Course +Crack Tools (1.10GB)

[ad_1]

Howdy Everyone,
Cracking নিয়ে সবারই কম বেশি আগ্রহ থাকে। Recenlty Black Hat এর Crack Couseটি Leak হয়েছে। নিচে Course এর Detail এবং Instructionগুলো Share করা হল:-

 

💎 কোর্সের টপিক সমূহ:-
1 Course Introduction
2 How To Create Digital Card For Making Amazon AWS RDP Part 1
3 How To Create _ Connect To RDP Instances In Amazon AWS Using Digital Card or Debit Card – Part 2
4 How To Use ForcerX To Crack RDP – Detailed By TN – Part 3
5 How to make HQ Keywords Part 1
6 How To Create HQ Dorks Using TSP Dork Generator Part 2
7 How To Make HQ Dorks _ HQ KeyWords Automatically Part 3
8 How To Get High-Quality URLs _ Proxies For Cracking
9 How To Get injectable URLs to Dump Database Of Vulnerable Sites
10 How To Dump Database _ Dehash Combos

11 Dumping _ DeHashing Databases Email _ Passwords [ Updated ] 12 How To Crack Premium Accounts – The Final Chapter

💎 যেসকল Tools দেওয়া হয়েছে :-

  • SQLi Dorks Generator By The N3RoX
  • openbullet + More Config
  • FindMyHash
  • TSP Dork generator – by Lh Production
  • SQLi_Dumper_v.8.5_Cracked_By_LautheKing
  • Dork Generator
  • SLAYER Leecher v0.6 Update

© All tools Right Reserved BY Black HATBlack Hat USA 2020 announces keynote lineup | 2020-07-16 | Security Magazine

 

Course’s Details

❗Language- Hindi/Urdu
∞ Download_Link- Onedrive/Telegram
✚ Total_Video- 12 only

 

এর আগেও একটা Binning Course Share করেছিলাম Black HAT এর। তবে ঐটার চেয়ে এবারের Videoগুলোর Language এবং Video Length অনেক কম ও Smooth Sound।

NOTE:-
Crack Softwareগুলো সব PCতেই Malware হিসেবে Detect করে, তাই আপনি ঐসকল Software/file Sandbox/RDP তে Run করতে পারেন। আমি Fresh Copy আমার Onedrive এ Upload দিয়েছি।

Bye
Contact Me On Telegram[@sakib0152] {@SHAKIB0152Bot}



[ad_2]
Source link